মেনু নির্বাচন করুন
Text size A A A
Color C C C C

উপজেলা চেয়ারম্যান ও উপজেলা নির্বাহী অফিসারের অফিস ভবন

                              ১৯১৫ সালে বিরল থানা গঠিত হয়। পরবর্তীতে ১৯৮৩ সালে সেপ্টেম্বর মাসের ১০ তারিখের সরকারি ঘোষনা মোতাবেক বিরল থানাকে উপজেলায় উন্নীত করা হয়। উপজেলা শহরটি ৯ টি মৌজার সমন্বয়ে গঠিত।

২৫.৩০ উত্তর অক্ষাংশ হতে ২৫‌‌‌‌‍‍‍‍.৪৫ উত্তর অক্ষাংশ এবং ৮৮.২৮ দ্রাঘিমাংশ হতে ৮৮.৩৮ দ্রাঘিমাংশ পর্যন্ত। উত্তরে কাহারোল ও বোচাগঞ্জ উপজেলা, দক্ষিনে ভারত। পূর্বে দিনাজপুর সদর উপজেলা ও পশ্চিমে ভারত।

 উপজেলার ইউনিয়ন সমূহ: ১নং আজিমপুর, ২নং ফরাক্কাবাদ, ৩নং ধামইর, ৪নং শহরগ্রাম, ৫নং বিরল, ৬নং ভান্ডারা, ৭নং বিজোড়া, ৮নং ধর্মপুর, ৯নং মঙ্গলপুর, ১০ রানী পুকুর, ১১নং পলাশবাড়ী এবং একটি পৌরসভা বিরল পৌরসভা। 

আদিবাসী অধ্যুষিত এলাকা। সাংস্কৃতিক বৈচিত্র্য আছে। এ উপজেলায় প্রচুর পরিমাণে উন্নত মানের লিচু উৎপাদিত হয়। খাদ্যশষ্যে উদ্বৃত্ত এলাকা। স্বাধীনতার ইশতেহার পাঠকারী মরহুম অধ্যাপক ইউসুফ আলীর জন্ম এ উপজেলায়।

বাংলা, সাওতালী, ওঁরাও ভাষাভাষির এখানে বাসকরে।

প্রখ্যাত ব্যাক্তিদের মধ্যে রয়েছে: মরহুম অধ্যাপক ইউসুফ আলী, মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক ও প্রাক্তন শিক্ষামন্ত্রী ও সাংসদ, শ্রী সতীশ চন্দ্র রায়, সমাজ সেবক ও সাবেক মন্ত্রী ও সাংসদ,  লে: জে: (অব:) মাহবুবুর রহমান, সাবেক সেনাবাহিনী প্রধান ও সাংসদ, ।